সাংবাদিকের স্ত্রীর ছবি দিয়ে ফেসবুকে ভুঁয়া আইডি,বন্ধে চায় ৫ লাখ টাকা

রাজু আহমেদ  আজকের ডাক | প্রকাশিত: রবিবার, মে ১২, ২০১৯ ১:৪৬ অপরাহ্ণ  

রাজধানীর মিরপুরের এক সাংবাদিকের স্ত্রীর ছবি ও নাম ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভুয়া অ্যাকাউন্ট খুলে বিভিন্ন অপপ্রচার করে আসছে এক প্রতারক চক্র। শুধু তাই নয়, সম্প্রতি এই ভুয়া অ্যাকাউন্টটি বন্ধে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করছে চক্রটি।

ভুক্তভোগী ওই সাংবাদিক একটি বেসরকারি টেলিভিশনের প্রধান প্রতিবেদক হিসেবে কর্মরত আছেন।

ভুক্তভোগী সাংবাদিকের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, সম্প্রতি আমার ছবি ও নাম ব্যবহার করে ফেসবুকে ভুয়া আইডি খুলে নানা রকম কুরুচিপূর্ণ পোষ্ট আপলোড করে যাচ্ছে অজ্ঞাত একটি প্রতারকচক্র। বিষয়টি আমার বিভিন্ন আত্মীয়-স্বজনদের দৃষ্টিগোচর হলে তারা আমাকে অবহিত করলে আমি আমার স্বামীকে ব্যাপারটা খুলে বলি। আমার স্বামী ওই আইডিতে মেসেজের মাধ্যমে এই অপরাধমূলক কার্যক্রমের কারণ জানতে চান। তবে মেসেজে কোন সদত্তর না পেয়ে আমরা হতাশ হয়ে পড়ি।

কিন্ত কয়েকদিন আগে হঠাৎ কয়েকটি মোবাইল নাম্বার থেকে আমাকে ও আমার স্বামীকে ফোন করে সেই ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দেবে বলে জানায়। তবে বিনিময়ে তাদেরকে দিতে হবে পাঁচ লক্ষ টাকা। পরবর্তীতে আমরা খুব আতংকিত হয়ে শাহ্ আলী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করি। শাহ আলী থানার জিডি নং-১২৯৪।

এদিকে আমাদেরকে ফোন করে চাঁদা দাবিতে ব্যবহারকৃত মোবাইল নম্বর গুলোর বিস্তারিত অনুসন্ধান করে জানতে পারি, এই প্রতারক অন্য কেউ নয়। কিশোরগঞ্জের ইটনা থানার চরপাড়া কাঞ্চানের হাটি গ্রামের নাজিমুদ্দিনের ছেলে সিরাজুল ইসলাম সোহাগ। আমার নিজ গ্রামেরই ছেলে! সে ঢাকায় কথিত একটি কওমী মাদ্রাসার শিক্ষক ও পীরসাহেব বলে এলাকায় দাবি করে।

তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পরপরই আমি নিজে বাদি হয়ে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে তাকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছি।

এমতাবস্থায় আমার একটাই দাবি, এ ধরনের প্রতারক চক্রকে আইনের আওতায় এনে যথোপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক, যাতে অন্যকোন নিরীহ মানুষকে এভাবে হয়রানি করতে না পারে।

জানতে চাইলে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি ও ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) নাজমুল ইসলাম বলেন, “এ বিষয়ে আমাদের কাছে এসে কেউ অভিযোগ করলে অবশ্যই আমরা অনুসন্ধান সাপেক্ষে দোষীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।”

এসময় তিনি বলেন, “আমি আহ্বান জানাই যে কোনো ধরণের সাইবার অপরাধ ঘটলে এদিক সেদিক নানাভাবে ঘোরাঘুরি না করে সরাসরি আমাদের কাছে আসলে আমরা ভুক্তভোগীকে প্রাযুক্তিক সহায়তা দিয়ে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।”

 

 

 

 

 

-এডি/ এএ

সর্বশেষ

জনপ্রিয় সংবাদ