আমরা বয়স কেন লুকাই?

 আজকের ডাক | প্রকাশিত: শনিবার, জুন ১৫, ২০১৯ ৯:৫৪ পূর্বাহ্ণ  

আপনার বয়স কতো? এর মতো বিব্রতকর প্রশ্ন বোধহয় আর নেই। আসল বয়স বলতে হবে ভেবে আপনি লজ্জায় লাল হয়ে যান। আপনি হয়ত সময়টা ধরে রাখতে চান বা বয়স লুকানোটাকে নিয়ম মনে করেন। আবার অনেকে ভাবে বয়স বেশি এটা বলে ফেললে হয়ত তাকে সবাই পুরনো, সেকেলে মনে করবে। সত্যি বয়সটা বললে হয়তবা আপনি ফ্যাশনেবলও হতে পারবেন না। বয়স বলার আগে এমন কতো ভাবনাই তো মাথার মধ্যে কিলবিল করতে থাকে। তাই বয়স বলার আগে ভেবে নিতে হয়ে কতটুকু কমাবো, কতটুকু বললে সবাই বিশ্বাস করবে বা আপনাকে আর সেকেলে মনে হবে না।

কখনো কখনো কাগজে কলমে আমাদের বয়স লুকিয়ে একটু কমিয়ে নিতে হয়। কিন্তু জনসম্মুখে বা কাছের লোকদের কাছে বয়স লুকানো মনে হয় না খুব জরুরি। কিন্তু তবুও আমরা বিনা কারণে আমরা বয়স লুকিয়ে ফেলি। কিন্তু প্রশ্ন হলো নিজের বয়স লুকিয়ে এই ‘ছোটমানুষ’ হয়ে থাকার আসলে কারণগুলো কি? সেই বিষয়েই আজ আমাদের জানার চেষ্টা-

অন্যের কাছে গ্রহণযোগ্য হওয়া

বয়স বেশি বললে আপনাকে সবাই ব্যাকডেটেড ভাবতে পারে। আপনি হয়ত এমন একটি সার্কেলের সঙ্গে মেশেন যেখানে সবার বয়স একই ধরনের, আপনি বরং তাদের থেকে সিনিয়র। সেখানে আপনার আসল বয়সটা বললে আপনি হয়ত তাদের কাছে বেমানান হয়ে যাবেন, তারা আপনাকে বেশি বয়স বলে খোঁচাখুচি করবে। তাই আপনাকে তাদের সমকক্ষ হিসেবে গ্রহণযোগ্য করতে বয়স আপনাকে লুকাতেই হয়।

ভালোবাসার সম্পর্ক যদি কারণ হয়

আপনি চান আপনার সঙ্গীটি একেবারে মনমতো হোক। তার কাছেও আপনি নিখুঁত হোক। কিন্তু আপনার বয়সটা একটু বেশি হয়ে গেলে সঙ্গীর কাছে আকর্ষণীয় হতে পারবেন না- এই ভয় থেকে আপনি বয়স লুকিয়ে ফেলেন।

পরিবার যদি বলে

সমাজে একটি প্রচলিত বিষয় আছে, পরিবারের মা-দাদীরা তাদের সন্তানদের আসল বয়স বলতে নিষেধ করেন। তাদের মধ্যে এই বিষয়টি নিয়ে নানারকম কুসংস্কার কাজ করে। আর তাই ছেলেমেয়েরা বড় হতে হতে এই বিষয়টি নিজের মনে গেঁথে রেখে দেয়। ফলে তারা তাদের সঠিক বয়সটি কাউকে বলতে চায় না। সেই বিষয়টি যদিও এখন অনেকটাই বদলে গেছে।

ভয় যখন ‘বুড়ো হয়ে যাচ্ছি’

অধিকাংশ নারীর মনে সাধারণ একটি ফোবিয়া কাজ করে। সেটা হলো ইস, বুড়ো হয়ে যাচ্ছি। বয়সটা বেড়ে গেলেই তো বুড়ো হয়ে গেলাম। বয়সকে ধরে রাখতে তারা বিভিন্ন রূপচর্চা, প্লাস্টিক সার্জারি এবং যোগব্যায়াম, ধ্যানও করেন। তারা কিছুতেই আসল বয়সটা বলতে চায় না।

কিছুটা ঈর্ষাবোধ থেকে

নিজের পরিচিতদের মধ্যে যদি আশেপাশে বেশি সুন্দর কেউ থাকে, তার সঙ্গে আপনার হয়ত নিয়মিত মেলামেশা করতে হয় তো আপনার একটু বেশি হয়ে যাওয়া বয়সটাও আপনার কাছে বিরক্তিকর হবে। সুন্দর অল্পবয়সের মানুষ দেখে মন চাইবে আপনিও তেমন হতে পারতেন! তারা এমন হলে আপনি কেন তেমন হতে পারছেন না, এই ক্রোধ বা ঈর্ষাও আপনাকে বাধ্য করে বয়স লুকাতে।

চাকরিবাকরি পাওয়া

চাকরি বরাবরই আমাদের কাছে সোনার হরিণ। চাকরিতে অনেক আনুষ্ঠানিকতা থাকে। সেখানে কিছু পোস্টে বেশি বয়স হয়ে গেলে আপনি আর নিয়োগ পাবেন না। তাই চাকরি পাওয়ার জন্য অনেকসময় বয়স সীমা নির্ধারণ করা থাকে। আর এই বয়সের ভিতরে থাকার জন্য অনেকেই প্রকৃত বয়সটি লুকানোর চেষ্টা করেন। আবার চাকরির বাজারে আপনার আর ভালো সরকারিজাতীয় কোনো চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে আপনার আর বয়স নেই- এটা প্রকাশ করতেও খারাপ লাগে। তাই বাধ্য হয়েই বয়স লুকানো।

সর্বশেষ

জনপ্রিয় সংবাদ