সমকামীতার সময় বিএনপি নেতাকে ইট দিয়ে পিটিয়ে হত্যা

 আজকের ডাক | প্রকাশিত: মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০১৯ ২:০২ অপরাহ্ণ  

সমকামীতায় বাধ্য করায় রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বিএনপির নেতা নুরুল ইসলামকে (৫৫) ইট দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে এক কিশোর। ক্ষোভ থেকেই গত ১০ জুন রাতে ওই কিশোর ইট দিয়ে আঘাতের পর আঘাত করে হত্যা করে এ বৃদ্ধকে।

১১ জুন সকালে উপজেলার কাঠালবাড়ীয়া এলাকার একটি ইটভাটা থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত নুরুল ইসলাম উপজেলার ধোপাপাড়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি রাজশাহী জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি ছিলেন। এছাড়াও উপজেলার জিউপাড়া ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতিও ছিলেন নুরুল ইসলাম।

এ ঘটনায় সোমবার বিকেলে অভিযুক্ত ওই কিশোর (১৬) আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। সে উপজেলার রামজীবনপুর এলাকার হকের ছেলে। জবানবন্দি নেয়ার পর ওই কিশোরকে জেলহাজতে পাঠিয়েছেন আদালত।

ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে তাকে পরিকল্পিত হত্যার দাবি করছিল তার পরিবার। এ নিয়ে থানায় হত্যা মামলাও দায়ের হয়।

মঙ্গলবার বিকেলে জেলা পুলিশের মুখপাত্র ইফতেখায়ের আলম গণমাধ্যমকে জানান, শুরু থেকেই মামলাটি তদন্ত করছিল জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে রোববার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত ওই কিশোরকে। সোমবার বিকেলে ওই কিশোর আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

জবানবন্দিতে ওই কিশোর জানায়, বিএনপি নেতা নুরুল ইসলামকে প্রতিবেশী ওই কিশোর নানা সম্বোধন করতো। এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন সময় তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়েছেন ওই শ্রমিক নেতা। এতে ওই কিশোর অনিচ্ছা প্রকাশ করলে তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতেন তিনি (নানা)।

পুলিশকে ওই কিশোর জানায়, ১০ জুন দিবাগত রাত ৯টার দিকে তাকে কাঠালবাড়িয়ার ওই ইটভাটায় যান নুরুল ইসলাম। সমকামীতায় লিপ্ত অবস্থায় পড়ে যান ওই বৃদ্ধ। এ সময় ওই কিশোর প্রথমে বৃদ্ধের গলা টিপে ধরে। এরপর ইট দিয়ে মাথায় উপর্যপুরি আঘাত করে অচেতন করে চলে যায়।

এলাকার আরও কয়েকজনের সঙ্গেও সমকামীতায় লিপ্ত হতেন ওই শ্রমিক নেতা। এদের মধ্যে তিনজন আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।

সর্বশেষ

জনপ্রিয় সংবাদ