ঠাকুরগাঁওয়ে পুত্রবধুকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগে শ্বাশুড়ি গ্রেফতার !! স্বামী পলাতক

গৌতম চন্দ্র বর্মন, ঠাকুরগাঁও  আজকের ডাক | প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, জুলাই ৪, ২০১৯ ১:২৭ অপরাহ্ণ  

পারিবারিক কলহের কারণে বিথি রানী শর্মা নামে এক নববধূকে স্বামী ও শাশুড়ি কতৃক গলাটিপে হত্যার অভিযোগে শ্বাশুড়ি বুদ্ধিমনি রায়কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

০৩ জুন (বুধবার) দুপুরে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

জানা গেছে, রুহিয়া থানার আখানগর ইউনিয়নের কালি বাড়ি মহেশপুর গ্রামের বিজয় কুমার শমার্র মেয়ে বিথি রানী রায় কে ভালবেসে বিয়ে করে একই ইউনিয়নের ভেলারহাট গুচ্ছগ্রামের জোতিষ রায়।

বিয়ের পর কিছুদিন যেতে না যেতেই সাংসারিক কাজকর্ম নিয়ে শ্বাশুড়ি ও পুত্রবধূর মাঝে প্রায় সময়ে ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকতো। জোতিষ তার মায়ের ইন্ধনে স্ত্রী বিথি রানীকে প্রায় মারধর করতো।

এরই জেরে গত ০২ জুন (মঙ্গলবার) সকালে বিথীর সঙ্গে তার স্বামী জোতিষ এর পারিবারিক কারণে বাক-বিতন্ডা দেখা দিলে এক পর্যায়ে মা ছেলে মিলে বিথী রাণীকে গলাটিপে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে।

পরে অবস্থা বেগতিক দেখে লাশ ফেলে পালিয়ে যায় পাষন্ড স্বামী জোতিষ ও তার মা বুদ্ধিমনি রায়। খবর পেয়ে রুহিয়া থানার পুলিশ ঐদিন দুপুরে ভেলারহাট গুচ্ছগ্রাম হতে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঠাকুরগাঁও মর্গে প্রেরন করে।

পরদিন বুধবার ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে লাশের ময়না তদন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ ঘটনায় মৃতের মা জানকি রানী সাহা বাদী হয়ে জামাতা জোতিষ চন্দ্র রায় ও তার মা বুদ্ধিমনি রায়কে আসামী করে রুহিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করে। পুলিশ তাৎক্ষনিকভাবে অভিযান চালিয়ে শ্বাশুড়ি বুদ্ধিমনি রায় (৪৫) কে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরন করে।

রুহিয়া থানর ওসি প্রদীপ কুমার রায় বলেন, আখানগর গুচ্ছগ্রামে এক গৃহবধূর মৃত্যুর ঘটনায় হত্যা মামলা রুজু করা হয়েছে। ২ জন আসামীর মধ্যে ১ জনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে ।

এইচএ/বিবি

সর্বশেষ

জনপ্রিয় সংবাদ