গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি সংসদকে অবমাননা: মেনন

 আজকের ডাক | প্রকাশিত: রবিবার, জুলাই ৭, ২০১৯ ৫:২৭ অপরাহ্ণ  

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি আদালত ও সংসদকে অবমাননা বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক মন্ত্রী ও ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন। তিনি বলেন, এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন বিইআরসি গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি করার মধ্য দিয়ে কোর্টকে অবমাননা করেছে, সংসদকে অবমাননা করেছে, সর্বোপরি জনগণকে অবমাননা করেছে।

জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে রোববার এ কথা বলেন তিনি। এ সময় ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে অধিবেশন চলছিল।

রাশেদ খান মেনন বলেন, বাজেট অধিবেশন সমাপ্তির পরপরই এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন গ্যাসের মূল্য ৩২ দশমিক ৮ ভাগ বাড়িয়ে দিয়েছে। বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এর প্রভাবে গৃহস্থালিতে, শিল্প পরিবহনে, অর্থনীতির সব ক্ষেত্রে একটা প্রতিক্রিয়া হবে। যেটা কৃষিমন্ত্রী স্বীকারও করেছেন। তিনি বলেছেন, জনগণের প্রতিক্রিয়া আছে। জনগণের মধ্যে ক্ষোভ ও হতাশা আছে। আমি নিজেও হতাশ।

তিনি বলেন, বাজেট বক্তৃতায় বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর সাফল্যের প্রশংসা করে বলেছিলাম, গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি নিয়ে সংসদে আলোচনা করুন যাতে সব সংসদ সদস্য অংশগ্রহণ করতে পারে। কিন্তু দেখলাম বাজেট অনুমোদনের চার ঘণ্টার মাথায় বিইআরসি এ ঘোষণা দিয়ে দিল- এটা সংসদের চরম অবমাননা। সংসদকে এড়িয়ে যাওয়া।

মেনন বলেন, গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম মোর্চা অর্ধদিবস হরতাল ডেকেছিল, বিএনপি তাতে সমর্থন দিয়েছিল কিন্তু তারা মাঠে নামেনি, হরতাল হয়েছে কী হয় নাই অথবা কতটুক হয়েছে। হরতালের দিন আগের দিনের চাইতে যানজট বেশি ছিল- এ সমস্ত ক‚টতর্ক নিয়ে কথা বলে লাভ নেই। বিষয়টির গভীরতা অনুভব করে আলোচনা করা উচিত।

তিনি বলেন, এলএনজির মূল্য সমন্বয়ের কথা বলা হচ্ছে। ভারতে যেখানে এলএনজির আমদানি মূল্য সাড়ে ৬ ডলার প্রতি হাজার সিএফটিতে। আমাদের দেশ আমদানি করেছে সাড়ে ১০ ডলার দিয়ে, পাকিস্তানও সাড়ে ১০ ডলার। ইতিমধ্যে এলপিজির মূল্য প্রায় ৩২ শতাংশ বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। মূল্য সমন্বয়ের কারণে এলপিজির মূল্য ৭১ শতাংশ বেড়ে গেছে। তিনি বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রীকে বিষয়টি অবহিত করে সংসদে আলোচনার দাবি করেন।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, অর্থমন্ত্রী বাজেট পেশের পর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন করভার এমন করা হবে না, যাতে জনগণ কষ্ট পায়। আজকে সবাই গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির কী কষ্ট সেটা পাচ্ছি। এজন্য ৬৮ বিধিতে নোটিশ দিয়েছি।

এ সময় ডেপুটি স্পিকার বলেন, নোটিশটি বিবেচনাধীন রয়েছে। নোটিশ গ্রহণের পূর্বমুহূর্ত পর্যন্ত প্রতিমন্ত্রীর বিবৃতি দিতে চাচ্ছি না। যদি স্পিকার গ্রহণ করেন তাহলে বিশদ আলোচনা করার সুযোগ পাবেন।

সর্বশেষ

জনপ্রিয় সংবাদ